30 Srabon 1429 বঙ্গাব্দ সোমবার ১৫ অগাস্ট ২০২২
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » নগরকান্দা » নগরকান্দায় রাস্তার কাজে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

নগরকান্দায় রাস্তার কাজে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ


বিশেষ প্রতিবেদক।
ফরিদপুরের নগরকান্দা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের একটি আরসিসি রাস্তার কাজের মান নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে অসন্তোষ বিরাজ করছে। সিডিউল অনুযায়ী কাজ না করে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহার করার অভিযোগ উঠেছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। কাজের মান খারাপ হওয়ায় স্থানীয়রা বাঁধা প্রদান করলে ঠিকাদারের লোকজন ভয় ভীতি দেখিয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
প্রাপ্ত অভিযোগ ও সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরকান্দা পৌরসভার জুঙ্গুরদী খাদ্য গুদাম হতে কুমার নদের পাশ দিয়ে জুঙ্গুরদী খালপাড় পর্যন্ত ৬৪৫ মিটার আরসিসি রাস্তা নির্মানের কাজ পায় সৈয়দা জাহানারা এন্টারপ্রাইজ। ৯৯ লাখ ৬৫ হাজার ২২৭ টাকার এ কাজের মধ্যে সিডিউল অনুযায়ী গাইড ওয়াল নির্মানের কথা থাকলেও তা করা হয়েছে নিন্মমানের ইট দিয়ে। লোহার জালিতে যে পরিমান রড ব্যবহার করার কথা রয়েছে তা দেওয়া হচ্ছে না। পুরো রাস্তাটি পাথর দিয়ে ঢালাই দেবার কথা থাকলেও সেখানে ভয়াবহ রকমের জালিয়াতি করা হচ্ছে। নতুন পাথর ব্যবহার না করে সেখানে বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত হওয়া পুরনো পাথর ও ইটের খোয়া মিশিয়ে ঢালাই করা হচ্ছে। আর এসব অনিয়ম যাতে কেউ ধরতে না পারে সেজন্য ফরিদপুর থেকে মিক্সার মেশিনের মাধ্যমে মিক্সার করে তা দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। কাজের মান নিন্মমানের হওয়ায় স্থানীয়রা কাজে বাঁধা দিলে ঠিকাদারের পক্ষের কতিপয় লোক স্থানীয়দের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পৌর এলাকার জুঙ্গুরদী এলাকার বাসিন্দা মিরান মীর, আকরাম আলী, নান্নু মুন্সী, শহীদ মাতুব্বর, নিজাম শেখসহ বেশ কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা বলেন, রাস্তার কাজটি ঠিকমতো করা হচ্ছেনা। সিডিউল অনুযায়ী যেভাবে করার কথা তার সিকি ভাগও করছেনা ঠিকাদার। পাথর ব্যবহার করার কথা থাকলেও তা করা হচ্ছেনা। ইটের খোয়ার সাথে বিভিন্ন রাস্তার তুলে ফেলা পাথর ব্যবহার করা হচ্ছে। আর সিমেন্টের চেয়ে বালুর ভাগই বেশী রয়েছে। নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহার করার কারনে স্থানীয়রা যাতে দেখতে না পারে সেজন্য ফরিদপুর থেকে মিক্সার করে গাড়ীতে এনে রাস্তা ঢালাই করা হচ্ছে। এসব অনিয়মের বিষয়ে আমরা বাঁধা দিতে গেলে ঠিকাদারের লোকজন আমাদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। বিষয়টি আমরা স্থানীয় কাউন্সিলর ও মেয়রকে জানিয়েছি।
স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবলু মাতুব্বর বলেন, বর্তমানে জিনিষপত্রের যে দাম বেড়েছে সেজন্য ঠিকাদার হয়তো পুরনো পাথর ও ইটের খোয়া ব্যবহার করেছে। এসব বিষয় না ধরাই ভালো। রাস্তা হচ্ছে এটাই আসল কথা।
ঠিকাদার আবু আবদুল্লাহ বলেন, এ বিষয়ে আপনাদের সাথে কোন কথা বলবো না। আপনারা যা দেখেছেন তাই লিখে দিয়েন।
নিন্মমানের কাজের বিষয়ে নগরকান্দা উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ লুৎফর রহমানের মোবাইলে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোনটি রিসিভ করেননি।
নগরকান্দা পৌরসভার মেয়র নিমাই চন্দ্র সরকার বলেন, ব্যক্তিগত কাজে আমি ঢাকায় অবস্থান করছি। যদি ঠিকাদার অনিয়ম করে থাকে তাহলে তা যাচাই করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন...

নগরকান্দা খাদ্য গুদামে ৬০ টন পচা চাল নিয়ে তোলপাড়

বিশেষ প্রতিবেদক। ফরিদপুরের নগরকান্দা খাদ্য গুদামে আনা তিন ট্রাক নিন্মমানের পচা চাল আটকে দিয়েছে স্থানীয়রা। …

নগরকান্দায় টিসিবি’র পণ্য দিয়ে চেয়ারম্যান করলেন ভুড়িভোজের আয়োজন

বিশেষ প্রতিবেদক ফরিদপুরের নগরকান্দায় টিসিবি’র তেল, ডাল ও চিনি নিয়ে এক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ …