ফরিদপুর সদর

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফরিদপুরে গরুর হাট

ফরিদপুরের সিঅ্যান্ডবি ঘাটে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুরু হয়েছে গরুর হাট। শনিবার থেকে শুরু হওয়া এ হাট চলবে আসন্ন ঈদুল আজহার আগের দিন পর্যন্ত।
টানা ১৪ দিন ফরিদপুরের একমাত্র নৌবন্দর সিঅ্যা্ন্ডবি ঘাটের পাশে পদ্মা নদীর তীরে এই গরুর হাটে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসতে শুরু করেছে গরু ও ব্যাপারীরা। এলাকাবাসীর দাবি, শহরতলীর এই নিরাপদ ও যানযটমুক্ত পরিবেশে চালু হওয়া এই হাটটিকে স্থায়ী করার।
তিন একর জায়গার ওপর শুরু হওয়া এই হাটে আগত ক্রেতা-বিক্রেতাদের জন্য হ্যান্ডস্যানিটাইজার, মাস্ক ও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করেছে হাট কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি আগত ক্রেতা ও গরুসহ বিক্রেতাদের সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে স্থানীয় গ্রাম পুলিশ সদস্যদের সহায়তা নেওয়া হয়েছে। পদ্মা নদী হাট সংলগ্ন হওয়ায় উপকৃত হচ্ছে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ই।
বিক্রতারা ট্রলারে গরু নিয়ে সরাসরি হাটে গিয়ে ভিড়ছেন, একইভাবে গরু ব্যবসায়ীরা গরু কিনে নিয়ে ট্রলার যোগে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যাচ্ছেন নৌপথে। এছাড়াও এই হাটে আগতদের নিরাপত্তার জন্য রয়েছে সিসিটিভি ও সন্ধ্যা থেকে লাইটিংয়ের ব্যবস্থা।
ডিক্রিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টু বলেন, শহরের ব্যস্ততম এলাকায় প্রধান সড়কের পাশে টেপাখোলা গরুর হাট বসায় শহরবাসী চরম ভোগান্তি পোহায়, নির্বিঘ্নে গরু কেনা-বেচা করতে পারে না মানুষ। আমরা একথা চিন্তা করেই প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ঈদ পর্যন্ত বিশেষ এই গরুর হাটের আয়োজন করেছি। জনস্বার্থে এই হাট স্থায়ী করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *