ফরিদপুরের সংবাদ

সালথায় সাংবাদিক নাসের-মনির মোল্যাকে প্রাণনাশের হুমকি

সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি #
ফরিদপুরের সালথায় মুক্তিযোদ্ধা আঃ আলিম মাতুব্বারের উপর হামলার ঘটনার সংবাদ পরিবেশন করায় সালথা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আবু নাসের হুসাইন ও সদস্য মনির মোল্যাকে ফেসবুকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে। এ বিষয়ে হুমকি দাতাদের বিরুদ্ধে সালথা থানায় পৃথক পৃথক ভাবে দুইটি জিডি করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের মাঝারদিয়া গ্রামে জমির সীমানায় গাছ কাটা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা আঃ আলিম মাতুব্বার ও তার পরিবারের উপর হামলা করে একই গ্রামের আতিক মাতুব্বারের লোকজন। এতে মুক্তিযোদ্ধা আলিম মাতুব্বার ও তার ছেলে আছাদুজ্জামান মাতুব্বার গুরুতর আহত হয়। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনার বিষয়ে সালথা প্রেসক্লাবের সহসভাপতি, দৈনিক খোলা কাগজ এর প্রতিনিধি আবু নাসের হুসাইন ও দৈনিক আজকালের খবর পত্রিকার প্রতিনিধি মনির মোল্যার পাঠানো সংবাদ কয়েকটি পত্রিকা ও অনলাইনে প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের পর আবু নাসের হুসাইন ও মনির মোল্যা তাদের ফেসবুকে শেয়ার করেন। ফেসবুকে শেয়ার করা নিউজের নিচে কমেন্টে খর ঞড়হ, ঝধহরস কযধহ ও গফ ঝড়নড়লয ওংষধস নামের ফেসবুক আইডি থেকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এঘটনায় সাংবাদিক আবু নাসের হুসাইন ও মনির মোল্যা সালথা থানায় দুটি জিডি করেছেন।
আবু নাসের হুসাইন ও মনির মোল্যা বলেন, স্থানীয়দের ভাষ্য, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের অভিযোগ, থানার ওসি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বক্তব্যসহ সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে। হুমকি দাতাদের বিরুদ্ধে জিডি করা হয়েছে।
সালথা প্রেসক্লাবের সভাপতি সেলিম মোল্যা হুমকির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, হুমকী দাতাদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করা হয়েছে। পুলিশের কাছে, দোষীদের আইনের আওয়াতায় আনার জোর দাবী জানাচ্ছি।
সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে হুমকি দাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ হাসিব সরকার বলেন, মুক্তিযোদ্ধা আঃ আলিম মাতুব্বারের উপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সেই সাথে এই মুক্তিযোদ্ধার উপর ন্যাক্কারজনক হামলার ঘটনার নিউজ করায় দুই সাংবাদিককে যারা হুমকি দিয়েছে তাদেরকেও চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *