আন্তর্জাতিক

বাংলা নামে দিল্লির আপত্তি

পশ্চিমবঙ্গের নাম বদল করে বাংলা করার প্রক্রিয়া ধাক্কা খেল। রাজ্যের নাম পরিবর্তন করে ‘বাংলা’ করার লক্ষ্যে সর্বসম্মতিক্রমে বিধানসভায় প্রস্তাব অনুমোদন করা হয় এবং তা এই বছরের গোড়ার দিকে তা দিল্লি পাঠায় মমতা ব্যানার্জি সরকার। ভারতে নাম পরিবর্তনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের সিলমোহর আবশ্যক।

একটি সরকারি সূত্র জানায়, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নাম বদলের প্রস্তাব পাঠানো হয়। আমাদের জানানো হয়েছে যে এই প্রস্তাব তারপর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। যেহেতু বাংলাদেশ নামে একটি পার্শ্ববর্তী দেশ আছে, পশ্চিমবঙ্গের নাম বদলে বাংলা করলে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হবে- এমনটা মনে করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই আপত্তির পরে কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রণালয়কে এই প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে তাদের মতামতের জন্য।

ওই সূত্রটি আরো জানায়, আমরা জানতে পেরেছি যে, কেন্দ্রীয় সরকার আমাদের রাজ্যের নাম সব ভাষায় পশ্চিমবঙ্গ করার প্রস্তাব দেবেন। বাংলায় পশ্চিমবঙ্গ হলেও, ইংরেজিতে ওয়েস্ট বেংগল এবং হিন্দিতে পশ্চিমবংগাল বলা হয় মমতা ব্যানার্জির রাজ্যকে।

রাজ্যের একটি নাম করার লক্ষ্যে মমতা নিজে উদ্যোগ গ্রহণ করে বাংলা নামের প্রস্তাব কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে পাঠান।

দিল্লি যে এই প্রস্তাবে সাড়া না দিয়ে অন্য নামের প্রস্তাব পাঠাচ্ছে তাতে বেশ উৎফুল্ল বিজেপি নেতারা। বিজেপি নেতা রাহুল সিং বলেন, পশ্চিমবঙ্গ নামের সাথে দেশভাগের ইতিহাস জড়িত। সেই নাম বদলে বাংলা করার সিদ্ধান্ত শুধু হঠকারী নয়, বিভ্রান্তিকর-ও বটে। কারণ বাংলাদেশ নামে একটি দেশ আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *