নগরকান্দা

নগরকান্দায় সরকারি রাস্তা দখল করে ঘর নির্মানের অভিযোগ

নগরকান্দা প্রতিনিধি ।
ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার চাঁদহাট বাজারে সরকারি বরাদ্দকৃত রাস্তা দখল করে দোকান ঘর নির্মান করছেন চরযশোরদী ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান পথিক তালুকদারের ভাই তারেক তালুকদার। এদিকে, গুরুত্বপুর্ন এ রাস্তার পুরোটাই দখল করে ঘর নির্মান করায় ভোগান্তিতে পড়েছেন ঘর মালিক, ব্যবসায়ী ও সাধারন মানুষ। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চাঁদহাট বাজারের মেইন রাস্তা হতে পেঁয়াজ হাটে যাওয়ার একমাত্র সরকারি বরাদ্দকৃত পাকা রাস্তা দখল করে দোকান ঘর নির্মান করেন চরযশোরদী ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই তারেক তালুকদার। যার ফলে পেয়াজ বাজারে যাওয়ার জনবহুল গুরুত্বপুর্ন একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ হয়ে যায়। উক্ত রাস্তায় ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তর হতে একাধিকবার সরকারি বরাদ্দে উন্নয়ন কাজও সম্পুর্ন হয়েছে বলে জানা গেছে। পেয়াজ বাজারের একমাত্র রাস্তাটি সচল রাখতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন স্থানীয়রা। তারা জানান, এই রাস্তাটি বন্ধ হলে একদিকে যেমন পেঁয়াজ বাজারের যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হবে। অন্যদিকে চাঁদহাট বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের অন্তত ৪০ দোকান বন্ধ হওয়ার উপক্রম হবে।
রুমন নামের স্থানীয় এক পথচারী বলেন, বহু বছর ধরে এই রাস্তা দিয়ে আমরা পেঁয়াজ বাজারে যাতায়াত ও চলাচল করছি। এখন হঠাৎ করে সেখানে দোকানঘর নির্মান কাজ শুরু হওয়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হতে চলেছে। এতে বাজারের একটি অংশে যাতায়াত বন্ধ ও পেঁয়াজ বাজারের ক্রেতা বিক্রেতাদের চলাচলে অসুবিধা হলেও চেয়ারম্যানের ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করছে না।
চাঁদহাট বাজার কমিটির সভাপতি দুলাল মোল্য বলেন, চেয়ারম্যানের ভাই তারেক তালুকদার যে জায়গা তার বলে দাবী করছেন সেটি চাঁদহাট বাজারের মেইন রাস্তার মধ্যে পড়ে গিয়েছে। এখন অন্য দাগে এসে সেই অংশের দাবী তুলছেন। যে রাস্তার উপর ঘর তুলছেন সেটি মূলত চাঁদহাট বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের জায়গায়। আর পেয়াজ বাজারের মার্কেটটি যেহেতু বিদ্যালয়ের নিজস্ব মার্কেট তাই মার্কেটের সুবির্ধাথে বিদ্যালয়ের জায়গার উপর দিয়েই রাস্তাটি করা হয়েছিল। এমনকি পেয়াজের গাড়ি যাতায়াতের সুবিধার জন্য সাম্প্রতিক এই রাস্তার ঢালাই কাজ সম্পুর্ন হয়েছে।।
এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই তারেক তালুকদার বলেন, রাস্তা দখল করে নয়, পৈত্রিক জমির উপর দোকান ঘর নির্মান করতেছি। বর্তমানে রাস্তা হিসাবে ব্যবহৃত জায়গা আমার নিজস্ব সম্পত্তি।
এ বিষয়ে নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেতী প্রু বলেন, সরকারি রাস্তা দখল করে কেউ দোকান নির্মান করলে তা অবশ্যই উচ্ছেদ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *