13 Falgun 1427 বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » ফরিদপুর সদর » ফরিদপুরে অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান

ফরিদপুরে অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান

কামরুজ্জামান সোহেল।
দীর্ঘদিন পরে হলেও পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর, অবৈধ এবং লাইসেন্স বিহিন ইটভাটার বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযানে নেমেছে ফরিদপুর পরিবেশ অধিদপ্তর। গত দুই দিনে ফরিদপুর জেলার সদর, ভাঙ্গা, সদরপুর, মধুখালী উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসব অভিযানে নেতৃত্ব দেন পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক এ এইচ এম রাসেদ, পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ সাদিকুর রহমান সবুজ। অভিযান পরিচালনাকালে উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-৮ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। মঙ্গলবার অভিযানের প্রথম দিনে সদর উপজেলার তাম্বুলখানায় অবস্থিত মেসার্স মন্ডল ব্রিকস, মধুখালীতে মেসার্স আশরাফ এন্ড কোং এর ভাটার চিমনি এক্সেভেটর দিয়ে গুড়িয়ে দেওয়া হয়। এছাড়া কাঁচা ইট নষ্ট করার পাশাপাশি ভাটার আগুন পানি দিয়ে নেভানো হয়। একই দিন মধুখালীর কোড়কদিতে অবস্থিত মেসার্স কে এম জেড আর ব্রিকসকে ৫ লাখ টাকা, মধুখালীর দরিবাজারে অবস্থিত জেড এন্ড কে ব্রিকসকে ৫ লাখ টাকা, মধুখালীর বাগাটে অবস্থিত এম এন জেড ব্রিকসকে ৩ রাখ ৫০ হাজার টাকা, সদর উপজেলার তাম্বুলখানায় অবস্থিত সাজিদ ব্রিকসকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানের দ্বিতীয় দিনে বুধবার ফরিদপুর সদর উপজেলার কোমরপুরে অবস্থিত এ এস ব্রিকস, ধুলদিতে অবস্থিত এফ বি আই ব্রিকসের চিমনি এক্সেভেটর দিয়ে ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হয়। এছাড়া সদর উপজেলার ডিক্রিরচরে অবস্থিত এইচ এম বি ব্রিকসকে ৪ লাখ, এবি এন্টারপ্রাইজকে ৪ লাখ, ভাঙ্গার তাড়াইলে অবস্থিত আর আর ব্রিকসকে ৫ লাখ, আর এফ এম ব্রিকসকে ৩ লাখ এবং সদরপুর উপজেলার চর কুমারিয়ায় অবস্থিত এফ বি এফ ব্রিকসকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া ভ্রাম্যমান আদালত অবৈধ ইটভাটায় জরিমানার পাশাপাশি ইটভাটার বিলন এক্সেভেটর দিয়ে ভেঙে দেয় ও কাঁচা ইট পানি দিয়ে নষ্ট করার পাশাপাশি ইটভাটার আগুন ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে নেভানো হয়। অবৈধ ইটভাটা মালিকদের পরিবেশ অধিদপ্তর ফরিদপুরের অফিসের তরফ থেকে ইটভাটার সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার আদেশ প্রদান করে। অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে চালানো অভিযানে পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, র‌্যাব, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের টিম অংশ নেয়।
পরিবেশ অধিদপ্তর ফরিদপুরের উপ পরিচালক এ এইচ এম রাসেদ জানান, দীর্ঘদিন ধরে ফরিদপুর জেলায় অবৈধ ভাবে এবং নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে ইটভাটা গুলো চলছিল। ইটভাটা মালিকদের এসব বিষয় নিয়ে একাধিক বার চিঠি দিয়ে ভাটা বন্ধের কথা বলা হলেও তারা কোন কথাই শোনেনি। পরিবেশ অধিদপ্তর অবৈধ ইটভাটার গুলোর বিরুদ্ধে তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন...

মসলা ফসলের উন্নত জাত ও প্রযুক্তি বিষয়ক উদ্বুদ্ধকরনে মাঠ পরিদর্শন

কামরুজ্জামান সোহেল। বাংলাদেশ মসলা জাতীয় ফসলের গবেষনা জোরদারকরন প্রকল্পের আওতায় মসলা ফসলের উন্নতজাত ও প্রযুক্তির …

গেরদা ইউপি’র চেয়ারম্যান পদে ‘উপ নির্বাচনে’ নৌকা চান এমার হক

বিশেষ প্রতিবেদক । ফরিদপুরের সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাহিদুর রহমান জাহিদের মৃত্যুতে …