11 Magh 1427 বঙ্গাব্দ রবিবার ২৪ জানুয়ারী ২০২১
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » ভাঙ্গা » ইউএনও-এসিল্যান্ডের অপসারনের দাবীতে উত্তাল ভাঙ্গা, মহাসড়ক অবরোধ

ইউএনও-এসিল্যান্ডের অপসারনের দাবীতে উত্তাল ভাঙ্গা, মহাসড়ক অবরোধ

কামরুজ্জামান সোহেল।
ফরিদপুরের ভাঙ্গায় দোকান বরাদ্দ নিয়ে দুর্নীতি ও অনিয়মের সাথে জড়িত ইউএনও রাকিবুর রহমান এবং এসিল্যান্ড আল আমিনের অপসারনের দাবীতে মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছে স্থানীয়রা। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের ভাঙ্গা চৌরাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে বিক্ষুব্দরা। সড়ক অবরোধকারীরা ভাংগার ইউএনও এবং এসিল্যান্ডের অপসারন করে করে স্লোগান দেয়। এসময় হাজার হাজার বিক্ষুব্দ জনতা মহাসড়ক অবরোধ করে ইউএনও-এসিল্যান্ডের অপসারন না করা পর্যন্ত রাজপথ না ছাড়ার ঘোষনা দেন। অবরোধ চলাকালীন সময়ে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, ভাঙ্গার ইউএনও-এসিল্যান্ড যোগসাজস করে সরকারী জমিতে রাতের আঁধারে কতিপয় ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দিয়ে তাদের দোকান ঘর তোলার অনুমতি প্রদান করে। তারা গোপনে এসব দোকান বরাদ্দ দিয়ে প্রায় ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেন। অবিলম্বে ঘুষখোর ইউএনও-এসিল্যান্ডের বিদায় না হওয়া পর্যন্ত অবরোধ চলবে বলে ঘোষনা দেয় উপস্থিত কয়েক হাজার বিক্ষুব্দ জনতা।
আধাঘন্টা সড়ক অবরোধ থাকায় দুই পাশে কয়েক হাজার যানবাহন আটকা পড়ে। পরে ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরীর আশ^াসের প্রেক্ষিতে অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষুব্দরা। এর আগে ভাঙ্গা বাজারে সরকারী জায়গায় দোকান বরাদ্দ নিয়ে অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে জড়িতদের বিচারের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে বাজারের ব্যবসায়ীরা। মানববন্ধন থেকে দুর্নীতির সাথে জদিতদের বিচার দাবী করা হয়। একই সাথে বরাদ্দ বাতিল করে নতুন করে বরাদ্দের দাবী জানানো হয়। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন ভাঙ্গা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ফায়জুর রহমান, ভাঙ্গা বাজার বর্ণিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মিরু মুন্সী, জেলা পরিষদের প্যানের চেয়াম্যান শেখ শাহীন, ঘারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান শফিউদ্দিন মোল্লা, সাবেক জিএস লাবলু মুন্সি, আলগী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ম ম সিদ্দিক, বনিক সমিতির সহ সভাপতি মিয়ান আলমগীর প্রমূখ।

ফরিদপুরের ভাঙ্গা বাজারের কাঠপট্রি এলাকায় সরকারী খাস জমিতে দোকান নির্মানের উদ্যোগ নেয় উপজেলা প্রশাসন। গত ২৩ ডিসেম্বর স্থানীয় এমপি, পৌর কতৃপক্ষা, বাজার বর্ণিক সমিতিকে না জানিয়ে গোপনে ৮৪ ব্যক্তিকে দোকান বরাদ্দ দেওয়া হয়। পরেরদিন অন্য হাজার হাজার আবেদনকারী ব্যবসায়ীরা একত্র হয়ে ভুমি অফিসের সামনে বিক্ষোভ করেন। তখন জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ফরিদপুর থেকে ডিডিএলজি মোঃ মনিরুজ্জামান এসে কাজ বন্ধ করে দেন।  এ নিয়ে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করে বরাদ্দ পাওয়া ও বঞ্চিত ব্যবসায়ীদের মাঝে। 

প্রসঙ্গত, ৫৫ নং সদরদী মৌজার এসএ, দাগনং ৪২৩,৪২৪ ও বিএস দাগ নং ১৮৫২,১৮৫৩ , ১নং খাসঁ খতিয়ানে ৬২ শতাংশ জমি। এই জমিতে দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গা ঈদগা মাদ্রাসা ও এতিম খানার নামে ১০টি দোকান ঘর বরাদ্দ পেয়ে ব্যবসা করে আসছিল। হঠাৎ সরকারী এক আদেশ মোতাবেক তড়িঘড়ি করে দোকানঘর বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে ফেলে। এরপর রাতারাতি বালু ভরাট করে এ্যাসিল্যান্ড এর মাধ্যমে ৮৪ টি দোকান ঘর বিভিন্ন নামে বরাদ্দ দেয়। এতে করে প্রকৃত ব্যবসায়ীদের না দিয়ে তাদের মনোনিত ব্যাক্তিদের নামে দোকান ঘর বরাদ্দের নামে কোটি কোটি টাকার বানিজ্যে করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
এদিকে, স্থানীয় সংসদ মুজিবুর রহমান চৌধরী নিক্সন জানান, দোকানঘর বরাদ্দের বিষয়টি আমার সাথে কোন প্রকার আলোচনা ছাড়াই ইউএনও ও এ্যাসিল্যান্ড গোপনে করেছেন। আমার নিকট অনেক ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করলে আমি ভুমি মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করেছি এবং সকলের সাথে আলোচনা করেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোটি কোটি টাকার বানিজ্য হওয়ার বিষয়টি আমার কানে এসেছে তবে তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন...

বরাদ্দ বাতিল না হলে হরতাল-অবরোধের ডাক এমপি নিক্সন চৌধুরীর

বিশেষ প্রতিবেদক। ফরিদপুরের ভাঙ্গা বাজারের সরকারী খাস জমিতে দোকান বরাদ্দ নিয়ে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ …

ভাঙ্গায় বিক্ষোভের মুখে সরকারী বরাদ্দের দোকান নির্মাণের কাজ বন্ধ

বিশেষ প্রতিবেদক । ফরিদপুরের ভাঙ্গা পৌরসভার ভাঙ্গা বাজারের থানা রোড সংলগ্ন সরকারি ৫৫ শতাংশ জমি …