11 Magh 1427 বঙ্গাব্দ রবিবার ২৪ জানুয়ারী ২০২১
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » বোয়ালমারী » বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচন- আ.লীগের লিপন, বিএনপির শুকুর শেখ

বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচন- আ.লীগের লিপন, বিএনপির শুকুর শেখ

কামরুজ্জামান সোহেল।
ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বড় দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপিতে প্রার্থী নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে সরব আলোচনা চলছিল। বিএনপিতে দুই প্রার্থী মনোনয়ন পাবার লড়াইয়ে নামলেও আওয়ামী লীগে ছিলেন ৮ জন। এরমধ্যে প্রার্থী বাছাই নিয়ে আওয়ামী লীগে চলে নাটকীয়তা। বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়ার বিরুদ্ধে প্রার্থী বাছাই নিয়ে অভিযোগ উঠে। উপজেলা সভাপতি মুশা মিয়া বর্তমান মেয়র তার আপন ভাই সহ দুই ভাই এবং তার এক কর্মীর নাম চুড়ান্ত করে কেন্দ্রে পাঠান। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সেলিম রেজা লিপন মনোনয়ন প্রত্যাশী তালিকায় থাকলেও তার নাম বাদ দিয়ে তালিকা পাঠানো হয়। পরবর্তীতে জেলা কমিটির সুপারিশ নিয়ে সেলিম রেজা লিপন ঢাকায় গিয়ে দলীয় অফিসে তার মনোনয়ন পত্র জমা দেন। শুক্রবার সবাইকে চমকে দিয়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পত্র নিয়ে আসেন তরুন সাংবাদিক নেতা সেলিম রেজা লিপন। ফলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এম মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়ার দুই ভাইসহ আরেক কর্মী কেউই মনোনয়ন না পেয়ে হতাশ হন। পৌরসভা নির্বাচনের তফশিল ঘোষনা হবার পর থেকেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী নিয়ে বেশ আলোচনা চলছিল। বর্তমান মেয়র মোজাফফর হোসেন বাবলু গত নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে বিজয়ী হন। এবারও তিনি মনোনয়ন চান। কিন্তু দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী এবার মনোনয়ন পাবেন না এমন খবরে বেশ চাপের মধ্যে পড়েন বর্তমান মেয়র মোজাফফর হোসেন বাবলু। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী তালিকায় ছিলেন ৮ জন। এদের সবাই দলের মনোনয়ন চাইলেও বাদ সাধেন উপজেলা সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়া। তিনি তার একক ক্ষমতাবলে ৮ প্রার্থীর মধ্যে কেবলমাত্র তিনজনের নাম চুড়ান্ত করে কেন্দ্রে পাঠান। যার মধ্যে তার আপন ভাই, বর্তমান মেয়র মোজাফফর হোসেন বাবলু, আরেক ভাই উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাসানুজ্জামান মিয়া মুকুল ও মুশা মিয়ার ঘনিষ্টজন হিসাবে পরিচিত ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ সাহাবুদ্দিন আহমেদ সাফুর নাম। এ নিয়ে দলের মাঝে তীব্র অসন্তোষের সৃষ্টি হয়। পরে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের সুপারিশে কেন্দ্রে মনোনয়নপত্র জমা দেন সাংবাদিক নেতা সেলিম রেজা লিপন। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয় সেলিম রেজা লিপনকে। অপরদিকে, বিএনপি থেকে দুইজন মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। তাদের মধ্য থেকে দুইবারের সাবেক মেয়র, পৌর বিএনপির সদস্য আ. শুকুর শেখকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়। দলীয় মনোনয়ন না পেলেও এবারও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হতে পারেন বর্তমান মেয়র মোজাফফর হোসেন বাবলু।
আগামী ২০ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন। ১৬ জানুয়ারি বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন...

বোয়ালমারী পৌর নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি # ফরিদপুরর বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টা …

ফরিদপুরে বিএনপির গনতন্ত্রের কালো দিবস পালন

কন্ঠ রিপোর্ট। ৩০ ডিসেম্বর কলঙ্কের কালো দিন উপলক্ষে এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিল করে …