7 Kartrik 1427 বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর ২০২০
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » চরভদ্রাশন » চরভদ্রাসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বহিস্কারাদেশের সিদ্ধান্ত নাকচ

চরভদ্রাসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বহিস্কারাদেশের সিদ্ধান্ত নাকচ

বিশেষ প্রতিবেদক।
আগামী ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. কাউসারের বহিস্কারাদেশের সিদ্ধান্ত নাকচ করে দিয়েছে কেন্দ্র। গত মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সম্পাদকমন্ডলীর এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
ওই সভায় আলোকে বুধবার কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়–য়া ‘চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. কাউসারকে বহিস্কার প্রসঙ্গে’ এক চিঠি দেন ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ হোসেনকে।
ওই চিঠিতে বলা হয়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র মোতাবেক কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ ব্যতিত কাউকে বহিস্কার করার ক্ষমতা অন্য কোন সাংগঠনিক সভার নেই। এই কারনে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগ কর্তৃক মো. কাউসারের বহিস্কারাদেশটি বৈধ নয়।
গত ২৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ আওযামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় মো. কাউসারকে চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন করা হয়। মো. কাউসারের বিরুদ্ধে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগ আনীত অভিযোগসমূহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নিকট সত্য নয় বলে প্রতিয়মান হযেছে। সুতরাং আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মো. কাউসার আওয়ামী লীগের চূড়ান্ত প্রার্থী হিসেবে গণ্য হবে।
সভায় চরভদ্রাসন উপজেরা পরিষদ নির্বাচনে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগ ও উপজেলা আওযামী লীগের নেতাকর্মীদেরকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানাননো হয়।
কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা বলেন, জেলা কমিটি চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাউসারকে বাহিস্কারের কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি। উপজেলা কমিটি বিভিন্ন অভিযোগে তাকে (কাউসার) বহিস্কারের সুপারিশ করে জেলা কমিটির কাছে পাঠায়। আমরা সেই সুপারিশ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির নিকট পাঠিয়েছি মাত্র।
উল্লেখ্য গত বছর ২৩ অক্টেবর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মুসার মৃত্যুর কারনে উপজেলার চেয়ারম্যান পদটি শূণ্য হয়ে যায়। গত ২৯ মার্চ এ উপ-নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। করোনার কারনে তা পিছিয়ে ২০ আক্টোবর ভোট গ্রহণের দিন ধার্য করা হয়।

আরও পড়ুন...

ত্রাণ বিতরনে কাজ করেছে বিএনপি- শাহজাদা মিয়া

ফরিদপুর জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি, চেয়ারপারর্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আলহাজ¦ জহিরুল হক শাহাজাদা মিয়া …

আওয়ামীলীগ ছিল ‘পকেট কমিটি’- শামসুল হক

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শামসুল হক ভোলা মাষ্টার বলেছেন, …