3 Magh 1427 বঙ্গাব্দ শনিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২১
Home » এক্সক্লুসিভ » ভেড়া পালন করে ‘দিনবদল’ খাদিজা বেগমের

ভেড়া পালন করে ‘দিনবদল’ খাদিজা বেগমের

কামরুজ্জামান সোহেল #
তিন বছর আগেও সংসারে অভার-অনটন লেগেই ছিল খাদিজা বেগমের। ২ ছেলে ও ১ মেয়ে নিয়ে স্বামী জাহাঙ্গীর মন্ডলের স্বল্প আয়ে কোনরকম চলছিল তার সংসার। সংসারে অভার আর অনটনের কারনে ছেলে-মেয়েদের পড়ালেখা তেমন একটা করাতে পারেননি। মেয়েকে বিয়ে দেবার পর বড় ছেলে রংয়ের কাজ শুরু করেন। ছোট ছেলে এখন পড়ালেখা করছেন। স্বামী ক্ষুদ্র ব্যবসা করেন। স্বামীর আয় দিয়ে যখন চলছিল না তখন খাদিজা বেগম নিজেই কিছু করার চেষ্টা করেন। সেই থেকে শুরু খাদিজা বেগমের ‘দিনবদলের’ চেষ্টা। এখন খাজিদা বেগমের সংসারে স্বচ্ছলতা ফিরেছে। তার দেখানো পথে অনেক নারীই এখন ‘দিনবদলের’ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের কৃষ্ণারডাঙ্গী গ্রামের খাদিজা বেগম ‘ভেড়া পালন’ করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন সবাইকে। নিজে কিছু করার অদম্য ইচ্ছে শক্তি নিয়েই শুরু হয় খাদিজা বেগমের পথচলা। খাদিজা বেগম বলেন, ‘এক সময় খুব কষ্ট করেছি। ছেলে-মেয়ে নিয়ে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটিয়েছি। এখন আমার কষ্টের দিন শেষ’। স্বামী যা রোজগার করে তার সাথে আমার আয়ে এখন আমরা খুব ভালো আছি। টাকা জমিয়েছি, নতুন ঘর দিয়েছি। ভেড়া পালনের পাশাপাশি ছাগল পালন শুরু করেছি। ইচ্ছে আছে, গরুর খামার করার। সরকার যদি ঋন দিয়ে সহযোগীতা করে তাহলে নিজেই একটি গরুর খামার করবো। খাদিজা বেগমের ‘দিনবদলের’ অগ্রভাবে ছিলেন স্থানীয় বেসরকারী সংস্থা ‘দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠন। বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ডিএমবি সংস্থার পরিচালক মোঃ ইব্রাহিম বিনামূল্যে খাদিজা বেগমকে ২ বছর আগে ২টি ভেড়া পালনের জন্য দেন। সেই থেকে শুরু খাদিজা বেগমের পথচলা। বর্তমানে খাদিজা বেগমের খামারে রয়েছে ১২টি ভেড়া, ৬টি ছাগল ও বেশকিছু হাঁস-মুরগী। গত দুই বছরে ভেড়ার বাচ্চা বিক্রি করেছেন ১৫টি। প্রতিটি বাচ্চা ৫ থেকে ৭ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন। খাদিজা বেগম বলেন, ভেড়া পালন একটি লাভজনক ব্যবসা। দামও ভালো পাওয়া যায়। ভেড়া পালনে তেমন একটা খরচ নেই। ভেড়া ও ভেড়ার বাচ্চা, ছাগল বিক্রি করে বেশকিছু টাকা জমিয়ে তা দিয়ে এ বছর একটি টিনের ঘর দিয়েছেন। আরো কিছু টাকা জমিয়ে গরু কেনার কথা জানান খাদিজা। নিজের ছোট্র জমিতে ভেড়া-ছাগল পালনের পাশাপাশি বিভিন্ন রকমের শাক-সবজির চাষও করছেন তিনি। শাক-সবজি বিক্রি করে সেই টাকা জমিয়ে জমি কেনার কথা ভাবছেন তিনি। খাদিজা বেগমের ‘দিনবদল’ থেকে এ গ্রামের অনেক নারীই ভেড়া-ছাগল পালনে আগ্রহী হচ্ছেন। কেউ কেউ ভেড়া-ছাগল, হাঁস-মুরগী পালন শুরুও করেছেন।

আরও পড়ুন...

জেলা পরিষদ কর্মকর্তা-কর্মচারী সমিতির নতুন কমিটি গঠন

বিশেষ প্রতিবেদক। জেলা পরিষদ কর্মকর্তা-কর্মচারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টায় ঢাকার …

রাজেন্দ্র কলেজের ৮২’ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মাক্স বিতরন

কন্ঠ রিপোর্ট। ফরিদপুরে মাক্স বিতরণ করেছে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের এইচএসসি ১৯৮২ সালের শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল …