14 Falgun 1427 বঙ্গাব্দ শুক্রবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » ভাঙ্গা » ভাঙ্গায় দুই সহোদরকে নৃসংশ ভাবে কুপিয়ে হত্যা, আটক-২

ভাঙ্গায় দুই সহোদরকে নৃসংশ ভাবে কুপিয়ে হত্যা, আটক-২

সুমন ইসলাম/ সাইফুল্লাহ শামীম।
ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের হাউলি গঙ্গাধরদী গ্রামে (পশ্চিমপাড়া) সোমবার সকালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সহোদর দুই ভাইকে নৃসংশ ভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতেরা হলেন, শামীম মাতুব্বর (২২) ও তার ছোট ভাই নবম শ্রেণীর ছাত্র রাকিব মাতুব্বর (১৫)। প্রতিপক্ষ ছদ্দাক মাতুব্বর ওরফে ছত্তার ও তার ছেলেরা কুপিয়ে হত্যা করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ঘাতক ছত্তার মাতুব্বর (৭০) ও তার ছেলে সালাম মাতুব্বর (২৫) কে আটক করেছে। বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছে। নিহত শামীম ও রাকিব হাউলী গঙ্গাধরদী গ্রামের গিয়াস মাতুব্বরের ছেলে। দুই ভাইকে নিসংশ ভাবে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। হত্যাকান্ডের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার মোঃ আলিমুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ভাঙ্গা সার্কেল) গাজি রবিউল ইসলাম,ভাঙ্গা থানার ওসি মোঃ শফিকুর রহমান। এসময় পুলিশ সুপারে ঘাতকদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আশ^াস প্রদান করে। পুলিশ ঘাতকদের বাড়ী থেকে বিপুল পরিমান দেশীয় অস্ত্র ঢাল, সরকি, টেটা ও রামদা উদ্ধার করে। দুই সহোদর হত্যার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত শামীম ও রাকিব এরা চার ভাই। বড় ভাই শাহীন মাতুব্বর মালোয়েশিয়া থাকেন। দ্বিতীয় ভাই আলিনুর ও নিহত শামীম ঢাকায় ঝালমুড়ি বিক্রি করে। ছোট ভাই রাকিব স্থানীয় গঙ্গাধরদী উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করে। অভাবের সংসার বাবা গিয়াস মাতুব্বর কৃষিকাজ করে সংসার চালায়। গিয়াস মাতুব্বরের ছেলে রাকিব রবিবার বিকালে বাড়ির পাশের বিলের মধ্যে পুটি মাছ মারা কারেন্ট জাল ফেলার জন্য আবর্জনা ছাফ করে জাল পেতে বাড়ি চলে আসে। কিছুক্ষণ পরে ছত্তার মাতুব্বরের ছেলে জামাল মাতুব্বর রাকিবের জালের উপর দিয়ে জাল ফেলে সেও বাড়ি চলে যায়। সন্ধ্যায় রাকিব তার জালের উপর জাল ফেলা দেখে সে অন্য জালকে গুছিয়ে ডাঙ্গায় রেখে দেয়। এ নিয়ে জামাল মাতুব্বর সহ তার ভাইয়েরা রাকিবের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে গালিগালাজ করেন এবং মারধর করার হুমকি দেন।
সেই জের ধরে সোমবার সকালে জামাল মাতুব্বর ও তার চার ভাই মিলে নিহতদের বাড়ির সামনের রাস্তায় এসে গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় শামীম ও রাকিব এগিয়ে গেলে তাদের দুই ভাইকে এলোপাথাড়ি ভাবে রামদা দিয়ে নৃসংশ ভাবে কোপাতে থাকে। এতে শামীম ঘটনাস্থলে মারা যায়। ছোট ভাই রাকিবকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেবার পথে সেও মারা যায়।
নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তরিকুল ইসলাম তারেক জানান, মাছধরা নিয়ে আগের দিন দুই পরিবারের মাঝে ঝগড়া হয়। সোমবার সকালে শামীম ও রাকিব প্রতিপক্ষের বাড়ীর দিকে গেলে সাত্তার মাতুব্বরের ছেলেরা বের হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাদের হত্যা করে।
অতিরিক্ত পলিশ সুপার গাজি রবিউল ইসলাম বলেন, এটা একটা পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। মাছধরাকে কেন্দ্র করে সহোদর দুই ভাইকে ছত্তার মাতুব্বর গংরা কুপিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় দুই আসামিকে আটক করা হয়েছে এবং তাদের বাড়ি থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন...

ভাঙ্গায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

নিজস্ব প্রতিবেদক # সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় যত্রতত্র ড্রেজার মেশিন ও ভেকু দিয়ে …

বরাদ্দ বাতিল না হলে হরতাল-অবরোধের ডাক এমপি নিক্সন চৌধুরীর

বিশেষ প্রতিবেদক। ফরিদপুরের ভাঙ্গা বাজারের সরকারী খাস জমিতে দোকান বরাদ্দ নিয়ে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ …