8 Ashin 1427 বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » ফরিদপুর সদর » ‘হেলমেট, হাতুরী বাহিনীর স্থান আর ফরিদপুরে হবেনা’

‘হেলমেট, হাতুরী বাহিনীর স্থান আর ফরিদপুরে হবেনা’

কামরুজ্জামান সোহেল #
স্বাধীনতা মহান স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টায় শহরের ঐতিহাসিক জনতা ব্যাংক মোড় সংলগ্ন হাসিবুল হাসান লাবলু সড়কে এ শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়। শোকসভাটি শুরু হবার পর থেকে বিভিন্ন স্থান থেকে আওয়ামী লীগের নেতারা মিছিল সহকারে যোগদান করে। এসময় শোকসভাটি লোকে লোকারন্য হয়ে যায়। জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শামীম হকের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য এ্যাডভোকেট শামচুল হক ভোলা মাস্টার, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতা বাবু বিপুল ঘোষ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট সুবল চন্দ্র সাহা, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার অন্যতম আসামী বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর মোহাম্মদ ক্যাপ্টেন বাবুল, বীর মুক্তিযোদ্ধা কবিরুল আলম মাও, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ হোসেন, সাবেক অর্থ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান খান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক মোঃ ফারুক হোসেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সাইফুল আহাদ সেলিম, থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি খলিফা কামাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক অমিতাভ বোস, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডঃ বদিউজ্জামান বাবুল, শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি খন্দকার মঞ্জুর আলী, কোতয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামচুল আলম চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা খন্দকার আশরাফুজ্জামান মুরাদসহ নেতৃবৃন্দ।
সভার শুরুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকল শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়। শোক সভাটি একসময় প্রতিবাদ সভায় পরিণত হয়। কয়েক হাজার তৃণমূল নেতাকর্মীরা বৃষ্টি উপেক্ষা করে এই শোক সমাবেশে সমবেত হয়।
উত্তাল জনসমুদ্রে কেন্দ্রীয় নেতা বাবু বিপুল ঘোষ বলেন, ফরিদপুরে শোষণ, নিপিড়ন, লুটপাট হয়েছে। হেলমেটবাহিনী, হাতুড়িবাহিনীর সন্ত্রাসী নৃশংসতায় ফরিদপুর ছিল বাকরুদ্ধ। আজ আমরা মুক্ত স্বাধীন। অপশক্তি যত শক্তিশালী হোক তার নিস্তার নেই। তিনি সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিঃ খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি’র কথা উল্লেখ করে বলেন, উনি অযাচিত সম্পদের মালিক হয়েছেন। তার প্রশ্রয়ে লেভী-ফুয়াদ হেলমেটবাহিনী করেছিল। আর রুবেল-বরকত হাতুড়ি বাহিনী করে টেন্ডারবাজী, ভূমি দখল থেকে শুরু করে হাজার হাজা কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে দেশের বাইরে পাচার করেছে। মন্ত্রীর ভাই বাবর ফরিদপুরকে লুটপাট করে খেয়েছে। চোরের দল দোলন, বাইদা জাহিদ, স্বপন পাল, অনিমেষসহ চারজন ইউপি চেয়ারম্যান মহা দুর্নীতিবাজ। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, ফরিদপুর আজ নিঃশ্বাস নিতে শুরু করেছে। আজকের এই প্রতিবাদ সভায় হাজার হাজার নেতাকর্মীর উপস্থিতি বলে দেয় সমবেত ঐক্য কি পরিস্থিতি তৈরী করতে পারে?
শোক সভার সভাপতি শামীম হক বলেন, যারা লুটপাট করেছে, আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের হামলা করেছে, বঞ্চিত করেছে, তাদের ক্ষমা নেই। স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি আজ জেগে উঠেছে। দুবৃত্তরা পালাবার পথ পাবে না। দিনের পর দিন যারা আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে তারা আজ বিচারের সম্মুখীন হয়েছে। তাদের অনেকেই আটক হয়েছে। আরো কয়েকজন আটকের তালিকায় আছে। যারা দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা কামিয়েছে তাদের কারনে দল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আওয়ামী লীগের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে আর কখনোই দুর্নীতিবাজদের দলে নেওয়া হবেনা। কেউ দলের নাম ব্যবহার করে দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
শোক সভা শেষে পনেরই আগষ্ট নিহত বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য এ্যাডভোকেট শামসুল হক ভোলা মাস্টার।

আরও পড়ুন...

পর্যটন বিষয়ে ফরিদপুর জেলা প্রশাসনের ভার্চুয়াল সভা

আলমগীর জয় # পর্যটন সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধি, উন্নয়ন পরিকল্পনায় পর্যটনকে সম্পৃক্তকরণ এবং বাংলাদেশের পর্যটন মহাপরিকল্পনা …

ফরিদপুর জেলা পরিষদের উপ নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন ভোলা মাস্টার

সুমন ইসলাম। ফরিদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচনে জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান …