13 Magh 1427 বঙ্গাব্দ মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারী ২০২১
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » নগরকান্দা » নগরকান্দায় ইউপি সদস্যের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

নগরকান্দায় ইউপি সদস্যের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ফরিদপুরের নগরকান্দার কাইচাইল ইউনিয়নের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গির হোসেন মাতুব্বর (৫৫) এর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে তার বাড়ি সংলগ্ন একটি আম গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। এ ব্যাপারে নগরকান্দা থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলাদায়ের করা হয়েছে।
জাহাঙ্গির হোসেন মাতুব্বর কাইচাইল ইউনিয়নের উত্তরকান্দী গ্রামের মৃত বিল্লাল মাতুব্বরের ছেলে। তিনি বিবাহিত এবং দুই ছেলের বাবা। জাহাঙ্গির হোসেন কাইচাইল ইউনিয়নের আট নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ছিলেন।
জাহাঙ্গির মাতুব্বরের বড় ছেলে সাব্বির মাতুব্বর বলেন, রাত সাড়ে ১০টার দিকে তারা ঘড়িতে অ্যালার্ম দিয়ে ঘুমাতে যান তিনি। এরপর রাত তিনটার দিকে সেহরী খাওয়ার জন্য উঠে দেখেন তার মা ঘরে শোয়া কিন্তু বাবা নেই। এরপর প্রথমে ঘরের বাথরুমে তালাশ করে না পেয়ে বাইরের বাথরুমে খুঁজতে যেয়ে দেখেন বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে একটি আমগাছে তার বাবার লাশ গলায় রশি দেওয়া অবস্থায় ঝুলছে। এ ঘটনায় মৃতের ভাই লাবলু মাতুব্বর বাদী হয়ে নগরকান্দা থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন।
এদিকে জাহাঙ্গির হোসেনের মৃত্যুর খবর জানাজানি হলে তার সমর্থকেরা তার প্রতিপক্ষ নাসিম মাহমুদ, তারা মিয়া, সুরুজ মিয়া, বালা মাতুব্বর, ফারুক মাতুব্বর, জয়গুন বেগম, রেজাউল মাতুব্বর ও মহি মিয়ার বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তারা ভাংচুর ও লুটপাট করে বলে অভিযোগ করা হয়।
প্রতিপক্ষের হামলার শিকার নাসিম মাহমুদ বলেন, হামলাকারীরা তার প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল ক্ষতিসাধন ও লুটপাট করেছে। এ ঘটনার পর স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ঘটনাস্থলে গেলে তাদের উপর হামলা চালানো হয় বলে জানা গেছে।
কাইচাইল ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বলেন, সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের কারণে সরকারের দেয়া খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাহিদাপত্রে জাহাঙ্গির হোসেন নিজের দুই ভাই, ভাইয়ের স্ত্রী ও ছেলেদের নাম সুবিধাভোগীদের তালিকায় অন্তর্ভুক্তি করেন। যদিও ওই তালিকা অনুযায়ী তিনি কোন চাল উত্তোলন করেননি।
কবির হোসেন আরও জানান, তবে এ বিষয়টি ব্যাপক আলোচনায় আসায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন জাহাঙ্গির মাতুব্বর।
নগরকান্দা থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, প্রাথমিক তদন্তে এটি আত্মহত্যা বলে ধারনা করা যাচ্ছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই লাবলু মাতুব্বর বাদী হয়ে একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তি আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
প্রতিপক্ষদের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুরের ব্যাপারে ওসি সোহেল রানা বলেন, এ মৃত্যুর ঘটনার পর ওই গ্রামের কিছু উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। বর্তমানে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

আরও পড়ুন...

নগরকান্দা পৌরসভা নির্বাচনে ৬০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

নগরকান্দা প্রতিনিধি। ফরিদপুরের নগরকান্দা পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে রবিবার মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা …

মুক্তিযোদ্ধাকে লাঠিপেটা, সালথা থানার ওসি প্রত্যাহার

বিশেষ প্রতিবেদক। ফরিদপুরের সালথায় পুলিশের বিরুদ্ধে এক মুক্তিযোদ্ধাকে গালিগালাজ ও লাঠিপেটার অভিযোগ উঠায় প্রত্যাহার করা …