27 Chaitro 1426 বঙ্গাব্দ শুক্রবার ১০ এপ্রিল ২০২০
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » চরভদ্রাশন » চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাচন- আতংক আর ভীতির মধ্যদিয়েই চলছে প্রচারনা

চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাচন- আতংক আর ভীতির মধ্যদিয়েই চলছে প্রচারনা

বিশেষ প্রতিবেদক #
করোনা ভাইরাসের আতংকের মধ্যদিয়েই চলছে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচনের প্রচার প্রচারনা। শেষ মুহুর্তের প্রচারনায় উৎসবের আমেজ বিরাজ করলেও সাধারন মানুষের মধ্যে ভীতির সঞ্চার হয়েছে। প্রার্থী এবং তাদের সমর্থকেরা বাড়ী বাড়ী গিয়ে ভোট প্রার্থনা ও নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট আদায়ের চেষ্টা করে যাচ্ছেন। ফরিদপুরের ৯টি উপজেলার মধ্যে সবচে বেশী বিদেশে থাকা লোকজন রয়েছে চরভদ্রাসনে। গত ১লা মার্চ থেকে বিদেশ থেকে কয়েকশ মানুষ চরভদ্রাসনে এসেছেন। যারা বিদেশ থেকে এসেছেন তাদের বেশীর ভাগই প্রশাসনের নজরদারীতে নেই। নেই হোম কোয়ারেন্টেনে। ফলে এ অঞ্চলের মানুষের মধ্যে করোনা ভীতি কাজ করছে। করোনা ভীতির মধ্যেই উপ নির্বাচন হওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নির্বাচন বন্ধের বিষয়ে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ অভিমত ব্যক্ত করছেন। চরভদ্রাসন উপজেলার চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মুশা মারা যাওয়ায় এ পদটি শূন্য হয়। আগামী ২৯ মার্চ চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্র মিলে মোট ৬ প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের কাউসার আলী মোল্লা, বিএনপির এজিএম বাদল আমিন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার আলী, ওবায়দুল বারী দিপু, খবিরউদ্দিন আহমেদ ও শাওন হাসান। নির্বাচনের তফশিল ঘোষনার পর চরভদ্রাসন উপজেলার চারটি ইউনিয়নে চলছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারনা। প্রথম দিকে প্রচারনায় লোক সমাগম বেশী হলেও গত কয়েকদিন ধরে সভা-সমাবেশ ও উঠোন বৈঠক গুলোতে লোকজনের উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে। চরভদ্রাসন সদর উপজেলার আবদুর রহিম শেখ, ছমির বেপারী, তোফাজ্জেল মৃধা ভোট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তারা বলেন, করোনা আতংকের মধ্যে রয়েছে লোকজন। এরমধ্যে ভোট কতটা জরুরী তা বোধগম্য নয়। চরভদ্রাসন উপজেলায় বিদেশ ফেরত অনেক লোকজন এসেছে। তারা ভোটের প্রচারনায়ও অংশ নিচ্ছে। প্রার্থীদের সাথে সাথে থাকছেন। ফলে ভোটারেরা আতংকের মধ্যে রয়েছে। তারা অভিযোগ করে বলেন, প্রার্থীরা কোন নিয়ম কানুনও মানছেন না। তারা উঠোন বৈঠক ও নানা ভাবে জমায়েত হয়ে ভোট চাইছেন। তারা ভোটারদের সাথে হাত মেলাচ্ছেন, কোলাকুলি করছেন। শুধুমাত্র ভোটার ও স্থানীয় জনগনের মধ্যে করোনা আতংক রয়েছে এমনটা নয়। প্রার্থীদের মধ্যেই আতংক বিরাজ করছে। কিন্তু ভোটের কারনে তারা সেই আতংকের মধ্যদিয়েই প্রচারনার কাজটি চালিয়ে যাচ্ছেন।
চরভদ্রাসন উপজেলার কয়েকজন শিক্ষকদের সাথে কথা হলে তারা নামপ্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এই আতংকের মধ্যে নির্বাচন করাটা কি খুব জরুরী ছিল। আমাদের এখন এই আতংক নিয়েই ভোটের কার্যক্রমে অংশ নিতে হবে। পরিবারের অনেকেই ভোটের দিন ডিউটিতে যেতে মানা করছেন। কিন্তু সরকারী আদেশ তো মানতেই হবে।
চরভদ্রাসন উপজেলার বেশ কয়েকজন স্থানীয় ব্যক্তির সাথে কথা হলে তারা তাদের আতংকের কথা জানিয়ে বলেন, সারাদেশের মানুষ যেখানে করোনা ভাইরাসের ভীতির মধ্যে রয়েছে। যেখানে সরকার জনসমাগম এড়িয়ে চলার নির্দেশ দিয়েছেন। সেখানে ভোটের প্রচারনা চলছে কোন রকম সচেতনতা ছাড়াই। তারা বলেন, আগামী ২৯ মার্চের ভোট স্থগিত হলে তারা স্বস্তি পাবেন।

আরও পড়ুন...

আওয়ামী লীগ সভাপতির নির্দেশে বন্ধ হয়ে গেলো খাল খনন কাজ

বিশেষ প্রতিবেদক # ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে আওয়ামী লীগ সভাপতির নির্দেশে মাঝপথে বন্ধ হয়ে গেছে ডেল্টা প্ল্যানের …

চরভদ্রাসনের বিতর্কিত সেই দুই শিক্ষককে বরখাস্ত

বিশেষ প্রতিবেদক # ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার হরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতর্কিত দুই শিক্ষককে দুর্নীতি, সার্টিফিকেট, রেজিষ্ট্রেশন …