23 Joishtho 1427 বঙ্গাব্দ রবিবার ৭ জুন ২০২০
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » নগরকান্দা » নগরকান্দার ছোট নাওডুবি–‘ঘোষনা দিয়েই প্রতিনিয়ত চালানো হচ্ছে লুটপাট’

নগরকান্দার ছোট নাওডুবি–‘ঘোষনা দিয়েই প্রতিনিয়ত চালানো হচ্ছে লুটপাট’

বিশেষ প্রতিবেদক #
একটি হত্যাকান্ডকে পুঁজি করে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার কাইচাইল ইউনিয়নের ছোট নাওডুবি গ্রামে এখন ভীতিকর অবস্থা বিরাজ করছে। গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে শতাধিক নারী-পুরুষ। আর এ সুযোগে সুযোগ সন্ধানী একটি চক্র লুটপাট চালাচ্ছে। ঘোষনা দিয়েই প্রতিনিয়ত চালানো হচ্ছে লুটপাট। গত কয়েকদিনে কমপক্ষে ৩০টি বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর এবং লুটপাট করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, প্রভাবশালী একটি মহলের ছত্রছায়ায় থেকে প্রতিনিয়ত তারা লুটপাট চালাচ্ছে। তবে গ্রামে পুলিশী তৎপরতার কারনে দিনের বেলায় লুটপাট না চালিয়ে রাতের আঁধারে লুটপাট চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা জানান, গ্রাম্য আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আবুল কালাম মাতুব্বরের সাথে একই গ্রামের জয়নাল মাতুব্বরের দীর্ঘদিনের বিরোধ চলছিল। বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ১৭ ফেব্রয়ারি মারামারির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মারাত্বক ভাবে আহত হন কয়েকজন। এদের মধ্যে আবুল কালাম মাতুব্বরের পক্ষের ইশারত মাতুব্বর (৫০) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০দিন পর মারা যায়। সংঘর্ষের পর আবুল কালাম মাতুব্বর বাদী হয়ে জয়নাল মাতুব্বরসহ তার ২২ সমর্থককে আসামী করে একটি মামলা করেন। সেই মামলাটি পরবর্তীতে হত্যা মামলায় রুপান্তরিত হয়। ইশারত মাতুব্বরের মৃত্যুর খবর এলাকায় পৌছালে জয়নাল মাতুব্বরের সমর্থকেরা ঘর-বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে যায়। এ সুযোগে প্রতিপক্ষের লোকজন বেশ কয়েকটি বাড়ীতে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। গত ২৭ ফেব্রয়ারি থেকে নাওডুবি গ্রামে প্রতিনিয়ত চলছে প্রতিপক্ষের বাড়ীতে হামলা ও লুটপাট। লুটপাট থামাতে ওই গ্রামে ২৭ ফেব্রয়ারি থেকে পুলিশী প্রহরা বসানো হয়। দিনের বেলা পুলিশের উপস্থিতির কারনে রাতের বেলা চালানো হচ্ছে লুটপাট। প্রতিপক্ষের লোকজন ঘোষনা দিয়েই চালাচ্ছে লুটপাট এমন অভিযোগ উঠেছে। গত ১৫ দিনে কমপক্ষে ৩০টি বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুটপাট করা হয়েছে। যাদের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুটপাট করা হয়েছে সেই বাড়ীর মালিকেরা হলেন, লিয়াকত সিকদার, রুবেল মাতুব্বর, সাকেল মাতুব্বর, বিল্লাল হোসেন বাসু, ইকরাম মাতুব্বর, বসার মাতুব্বর, ইকতার মাতুব্বর, বসার সিকদার, সাহিদুল সিকদার, সূর্য্য মাতুব্বর, সফিকুল সিকদার, আজাদ সিকদার, ইলিয়াস মাতুব্বর, ছালাম মুন্সী, রশিদ মোল্লা, গ্যাদা মোল্লা, নয়ন মাতুব্বর, গোপাল সিকদার, হান্নান মোল্লা। এসব বাড়ী ভাংচুরের পাশাপাশি ঘরের সমস্ত মালামাল লুট করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এখনো হামলাকারীরা বিভিন্ন বাড়ীতে লুটপাটের ছক আঁটছে বলে জানা গেছে। মামলার কারনে অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে থাকার কারনে খেতের ফসল ও গবাদী পশুও লুট করছে প্রতিপক্ষের লোকজন। পুনরায় হামলার ভয়ে পুরুষদের পাশাপাশি মহিলারাও অন্যত্র চলে যেতে বাধ্য হয়েছে। বর্তমানে ছোট নাওডুবি গ্রামে বিরাজ করছে আতংক।
কাইচাইল ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন ঠান্ডু বলেন, মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুযোগ সন্ধানী একটি চক্র প্রতিনিয়ত বিভিন্ন বাড়ীতে হামলা চালিয়ে লুটপাট করছে। প্রতিপক্ষের লোকজনের ভয়ে অনেকেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।
নগরকান্দা থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, হত্যাকান্ডের পর গ্রামে রাত-দিন পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। রাতের আঁধারে বাড়ী ঘরে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটছে। তবে, পুলিশের তৎপরতার কারনে লুটপাটের ঘটনা কমে এসেছে।

আরও পড়ুন...

নগরকান্দায় ইউপি সদস্যের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ফরিদপুরের নগরকান্দার কাইচাইল ইউনিয়নের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গির হোসেন মাতুব্বর (৫৫) এর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে …

নগরকান্দায় ১১ বছরের শিশু করোনায় আক্রান্ত

নগরকান্দা প্রতিনিধি # ফরিদপুরের নগরকান্দায় আরো একজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে নগরকান্দায় করোনাভাইরাস …