11 Magh 1426 বঙ্গাব্দ শুক্রবার ২৪ জানুয়ারী ২০২০
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » ফরিদপুর মেডিকেলে পর্দা কেলেংকারীর ঘটনায় ৬ জনকে আসামী করে দুদকের মামলা

ফরিদপুর মেডিকেলে পর্দা কেলেংকারীর ঘটনায় ৬ জনকে আসামী করে দুদকের মামলা

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বহুল আলোচিত পর্দা ও যন্ত্রপাতি ক্রয়ের দুর্নীতিতে কাগজে কলমে ৩টি প্রতিষ্ঠান জড়িত থাকার কথা বলা হলেও বাস্তবে এই ৩টি প্রতিষ্ঠানই পরিচালনা করেন জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তার সাজ্জাদ হোসেন। নিজের ভাইদের নামে ভিন্ন ভিন্ন প্রতিষ্ঠান করে তিনি দরপত্র দাখিল করেন। এরপর সিন্ডিকেটের মাধ্যমে গঠিত যাচাই কমিটির তৈরি ভূয়া কোটেশন দাখিল করে আকাশচুম্বি মূল্যে মালামাল ক্রয় করা হয়। হাসপাতালে সংশ্লিষ্ট বিভাগ চালু না থাকলেও পর্দাসহ যাবতীয় যন্ত্রপাতি ক্রয় করা হয়। বর্তমানে এসব যন্ত্রপাতিসমূহ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত মামলার এজাহারে এসব অভিযোগ করা হয়েছে। বুধবার সকালে জেলা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তার কার্যালয়ে দুদকের পক্ষ হতে মামলাটি নথিভুক্ত করার জন্য জমা দেয়া হয়। মামলায় জাতীয় বক্ষব্যাধী হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুন্সি সাজ্জাদ হোসেন সহ তার ভাই অনিক ট্রেডার্সের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল্লাহ আল মামুন সরবরাবহকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান অনিক ট্রেডার্সের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল্লাহ আল মামুন ও মেসার্স আহমেদ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মুন্সি ফররুখ আহমেদ এবং ফমেক হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক (দন্ত বিভাগ) ডা. গণপতি বিশ^াস শুভ, ফমেক হাসপাতালের সাবেক জুনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনি) ডা. মিনাক্ষী চাকমা ও ফমেক হাসপাতালের সাবেক প্যাথোলজিস্ট ডা. এএইচএম নুরুল ইসলামকে আসামী করা হয়েছে। ফমেক হাসপাতালের তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক (উপ-পরিচালক) ডা. ওমর ফারুক খান এ ঘটনার পর মৃত্যুবরণ করায় তাকে মামলার আসামী করা হয়নি।

এজাহারে অভিযোগ করা হয়, দরপ্রস্তাব দাখিলকারী ৩টি প্রতিষ্ঠান যথা মেসার্স আহমেদ এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স অনিক ট্রেডার্স এবং মেসার্স আলী ট্রেডার্স নামে এই তিনটি প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে মেসার্স আহমেদ এন্টারপ্রাইজ জাতীয় বক্ষব্যাধী হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুন্সি সাজ্জাদ হোসেনের ভাই মুন্সি ফররুখ হোসাইনের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান। মেসার্স অনিক ট্রেডার্স মুন্সি সাজ্জাদ হোসেনের অপর ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুনের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান। কাগজে কলমে ৩টি প্রতিষ্ঠান দেখানো হলেও বাস্তবে দরপ্রস্তাব দাখিলকারী ৩টি প্রতিষ্ঠানই মূলত সাজ্জাদ হোসেন পরিচালনা করেন। ফমেক হাসপাতালে এম.এস.আর খাতে যন্ত্রপাতি ক্রয়ের দরপত্র আহ্বান করলে মুন্সি সাজ্জাদ হোসেন এই ৩টি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সিন্ডিকেট করে সাজানো দরপত্র দাখিল করেন।
এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ফমেক হাসপাতালের সাবেক উপ-পরিচালক ডা. মোঃ ওমর ফারুক খান ক্ষমতার অপব্যবহার করে কোনপ্রকার প্রাক্কলন ছাড়াই এসব যন্ত্রপাতি ক্রয়ের উদ্যোগ নেন। এরপর ওই হাসপাতালের দন্ত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. গণপতি বিশ^াস, তৎকালীন জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মিনাক্ষী চাকমা ও প্যাথলোজিস্ট ডা. এএইচএম নুরুল ইসলাম কে বাজারদর সংগ্রহ ও যাচাই কমিটির সদস্য নিযুক্ত করেন। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কত বরাবর দাখিলকৃত ৩টি কোটেশনের ভিত্তিতে উক্ত কমিটি ২০ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে বাজার দর প্রতিবেদন দাখিল করেন। অনুসন্ধানকালে কোটেশনগুলো ভূয়া ও সৃজিত মর্মে প্রতিয়মান হয়।
এজাহারে বলা হয়, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চাহিদার প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, হাসপাতাল-২ অধিশাখা কর্তৃক ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এমএসআর খাতে যন্ত্রপাতি সংগ্রহ বাবদ ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়। ফমেক হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কার্যালয় থেকে ২০১৪-১৫ ও ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দরপত্র বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে মেসার্স আহমেদ এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স অনিক ট্রেডার্স এবং মেসার্স আলী ট্রেডার্স দরপত্র দাখিল করে। ফমেক হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের সভাপতিত্বে গঠিত কারিগরী মূল্যায়ন কমিটি ও আর্থিক মূল্যায়ন কমিটি ৩টি প্রতিষ্ঠানের দরকে দাপ্তরিক প্রাক্কলিত দর হিসেবে গ্রহণের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

এরপর সর্বনি¤œ দরদাতা হিসেবে মেসার্স অনিক ট্রেডার্সকে ভিএসএ অন সাইড অক্সিজেন জেনারেটিং প্লান্ট, যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে ইউএসএ ১ পিস/সেট, অটোমেটিক স্ক্রাব স্টেশন, যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে কোরিয়া ৬ পিস, হসপিটাল কারটেইন সিস্টেম ফর আইসিইউ/সিসিইউ বেডস যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে কোরিয়া ১পিস, ডিজিটাল ব্লাড প্রেশার সিস্টেম যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে ইউএসএ ৩পিস, ভ্যাকুয়াম প্লান্ট মেশিন যার কান্ট্রি ারিজিন হচ্ছে ইউএসএ ১ পিস/সেট, সাকার মেশিন যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে নরওয়ে/চায়না ১পিস/সেট, ডাউন স্ট্রিম ইকুইপমেন্ট যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে ইউএসএ ২০ পিস/সেট, বিআইএস মনিটরিং সিস্টেম যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে ইউএসএ ১পিস/সেট, থ্রি হেড কার্ডিয়াক স্টেথোস্কোপ যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে ইউএসএ ৪ পিস/ সেট এবং ফাইবার অপটিক ল্যারিঙ্গোসকোপ সেটমেকিনটোস যার কান্ট্রি অরিজিন হচ্ছে ইউএসএ ২ পিস/সেট এমএসআর যন্ত্রপাতি সরবরাহের জন্য ১০ কোটি টাকার কার্যাদেশ প্রদান করা হয়।

উক্ত কার্যাদেশ প্রাপ্ত হয়ে মেসার্স অনিক ট্রেডার্সের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল্লাহ আল মামুন ২০১৪ সালের ৯ ডিসেম্বর এবং ২০ ডিসেম্বর তারিখের চালান মোতাবেক এসব মালামাল সরবরাহ করেন। এবং সরবরাহকৃত যন্ত্রপাতির মূল্য বাবদ ৭ কোটি ৬০ লাখ ও ২ কোটি ৪০ লাখ মোটচ ১০ কোটি টাকার বিল দাখিল করেন। সরবরাহকৃত যন্ত্রপাতিসমূহ সার্ভে কমিটি গ্রহণ করেন। অনুসন্ধানকালে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়, ভ্যাকুয়াম প্লান্ট মেশিনের স্পেসিফিকেশনে ক্যাপাসিটি সেভেন পয়েন্ট এইচপি থাকলেও মেশিনের প্যানেলে রেটিং দেয়া আছে ফাইভ এইচপি। অথ্যাঃ ভ্যাকুয়াম প্লান্ট মেশিন স্পেসিপিকেশন দরপত্র অনুযায়ী সরবরাহ করা হয়নি। সরেজমিনে আরো দেখা যায়, ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ বিভাগে চিকিৎসক কিংবা এমনকি চতুর্থ শ্রেনির কোন কর্মচারীও নিয়োগ দেয়া হয়নি। জনবলের অভাবে আইসিইউ বিভাগ চালু করা যায়নি। বিভাগ চালু না থাকা সত্তে¦ও পর্দাসহ উক্ত বিভাগের যাবতীয় যন্ত্রপাতি ক্রয় করা হয়েছে। পর্দাসহ ক্রয়কৃত যন্ত্রপাতিসমূহ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। এ ধরণের ভারী যন্ত্রপাতি যেই কোডে ক্রয় করা হয়েছে সাধারণত: সেই কোডে এসব মালামাল ক্রয় করা যায়না।

এ বিষয়ে দুদকের জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবুল কালাম আজাদ জানান, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় তাদের প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। আবুল কালাম বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে অসৎ উদ্দেশ্যে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জন্য ‘অপ্রয়োজনীয়’ এবং ‘অবৈধভাবে উচ্চমূল্যে’ যন্ত্রপাতি ক্রয়ের মাধ্যমে সরকারের দশ কোটি টাকা আত্মসাতের চেষ্টা করার অভিযোগ করা হয়েছে।
দুদকের এ কর্মকর্তা জানান, হাসপাতালের আইসিইউর পর্দা ও আসবাবপত্র কেনায় ২০১২ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত মেসার্স অনিক ট্রেডার্স নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বাজারমূল্যের চেয়ে অস্বাভাবিক দাম দেখিয়ে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠে। এরপর গত ২০ অগাস্ট উচ্চ আদালত এ অভিযোগ তদন্ত করতে দুদককে নির্দেশ দেয়। এর জন্য ছয় মাস সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা মেলায় এ মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান আবুল কালাম।

আরও পড়ুন...

ফরিদপুরে যুবদল নেতা মাহাবুবুল হাসান পিংকুর কম্বল বিতরন

ফরিদপুরের ১২টি ইউনিয়নের অসহায় দরিদ্র শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরন করছেন জাতীয়তাবাদী যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির গনশিক্ষা …

চরভদ্রাসনে মাদ্রাসা ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু

ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে মাদ্রাসা ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকাল ৮টার দিকে আব্দুর রহমান (৮) নামের …