৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ শুক্রবার ১৪ জুন ২০১৯
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » বোয়ালমারী » বোয়ালমারীতে সরকারী রাস্তার গাছ কেটে নিলো ইউপি চেয়ারম্যান

বোয়ালমারীতে সরকারী রাস্তার গাছ কেটে নিলো ইউপি চেয়ারম্যান

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ঘোষপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক মোঃ ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে সরকারী রাস্তার কয়েক লাখ টাকার গাছ কেটে নেবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গাছকাটার বিষয়টি নিয়ে এলাকার জনগনের মাঝে বেশ ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, ঘোষপুর ইউনিয়নের সাতৈর-ভীমপুর সড়কের রতনদিয়া বাজার থেকে দক্ষিন খামারপাড়া পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার সড়কের ৮/১০টি মূল্যবান শিশু ও রেইনট্রি গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। গাছ কাটার তদারকি করছেন ৩নং ওয়ার্ডের চৌকিদার মোঃ সাদেক আলী ফকির। এসব গাছ গুলোর বেশীর ভাগই কেটে নেয়া হয়েছে। বাকি গাছ গুলো এখনো কাটা হচ্ছে। সোমবার সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, সাতৈর-ভীমপুর এলজিইডি সড়কের বেশকিছু গাছ কাটা হচ্ছে। চৌকিদার সাদেক আলী জানান, ফারুক চেয়ারম্যানের নির্দেশে তিনি লোক দিয়ে গাছ গুলো কাটাচ্ছেন। রতনদিয়া বাজারের পাশ থেকে একটি রেইনট্রি ও দুইটি শিশু গাছ এবং দক্ষিন খামারপাড়া থেকে একটি রেইনট্রি ও চারটি শিশু গাছ ইতোমধ্যেই কেটে নেয়া হয়েছে। বাকি গাছ গুলো কাটা হচ্ছে। গাছ গুলোর অন্য বিশেষ নসিমনে তুলে অন্যত্র নিতে দেখা গেছে। গাছ গুলো কোথায় নেয়া হচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে নসিমন চালক জানান, চেয়ারম্যান তার অফিসে নিয়ে যেতে বলেছেন। স্থানীয় রতনদিয়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সামাদ জানান, মূল্যবান গাছ গুলো চেয়ারম্যানের নির্দেশে চৌকিদার শ্রমিক দিয়ে কেটে নিয়ে যাচ্ছে। দক্ষিন খামারপাড়া গ্রামের আবুল মিয়া জানান, রাস্তার পাশের অনেক গাছ আমি নিজে লাগিয়েছি। আমার কাছে না শুনে চেয়ারম্যান গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে। চৌকিদার সাদেক আলী ফকির জানান, ঘোষপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন সপ্তাহখানেক আগে নিজে এসে আমাকে গাছ গুলো দেখিয়ে কেটে নেবার কথা বলেছে। আমি তার নির্দেশ মোতাবেক শ্রমিক দিয়ে গাছ গুলো কেটেছি।
সড়কের পাশ থেকে সরকারি গাছ কেটে নেয়ার বিষয়ে ঘোষপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফারুক হোসেন বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের কয়েকটি দরজা-জানালা ভেঙ্গে যাবার কারনে সেই গুলো ঠিক করার জন্য গাছ গুলো কাটা হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের রেজুলেশনও করা হয়েছে। আমি ইউএনও মহোদয় ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিষয়টি জানিয়েছি।
সরকারি গাছ কেটে নেয়ার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ জাকির হোসেন জানান, গাছ কাটার বিষয়টি আমি জানার পর চেয়ারম্যানকে তার জিম্মায় ইউনিয়র পরিষদে রাখার কথা বলেছি। পরবর্তীতে তদন্ত করে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন...

বোয়ালমারীতে ডা. হ্যানিম্যানের জন্মদিন পালন

বোয়ালমারী অফিস # ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে ডাঃ দিলীপ রায় হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে মঙ্গলবার দুপুরে …

বোয়ালমারীতে সততা স্টোরের উদ্বোধন

সুমন খান, বোয়ালমারী # ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে সোমবার দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাত্রা শুরু করলো বিক্রেতাবিহীন সততা …