11 Magh 1426 বঙ্গাব্দ শুক্রবার ২৪ জানুয়ারী ২০২০
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » আলফাডাঙ্গা » আলফাডাঙ্গায় নিয়োগের পরও বেতন পাচ্ছেন না ১৬ শিক্ষক

আলফাডাঙ্গায় নিয়োগের পরও বেতন পাচ্ছেন না ১৬ শিক্ষক

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় নিয়োগের পাঁচ মাস পরও বেতন পচ্ছেন না ১৬ জন সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক। ফলে এসব শিক্ষকরা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।
গত ২ সেপ্টেম্বর ওই শিক্ষকদের আলফাডাঙ্গার ১৬টি বিদ্যালয়ে শুন্য পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। ওই মাসের ২৪ তারিখের মধ্যে তাদের নিয়োগ করতে বলা হলেও বেশির ভাগ শিক্ষক ২ থেকে ৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন।
নিয়োগপ্রাপ্ত ১৬ শিক্ষকেরা হলেন, সীমা রানী হালদার, সারমিন সুলতানা, মো. আরিফ হোসেন, মো. কাবুল হোসাইন, ফারহানা রহমান, উজ্জ্বল সরকার, মুন্সী মিরাজউদ্দিন, সোমা কর্মকার, সাদিয়া, তপতী কুন্ডু, রাজিয়া সুলতানা, লিপিকা সাহা, মাহফুজা পারভীন, বিলকিস সুলতানা, মো. আলী রেজা ও মো. মাহমুদ মিয়া।
বেতন না পাওয়া কয়েকজন শিক্ষকের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত বছর মার্চে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেন তারা। মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় গত জুন মাসে। গত সেপ্টেম্বর নিয়োগ পেয়ে তারা কর্মক্ষেত্রে যোগ দেন। কিন্তু গত পাঁচ মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না ১৬ জন শিক্ষক।
আলফাডাঙ্গা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, নিয়োগপ্রাপ্ত ১৬ শিক্ষককের মধ্যে ১০জন শিক্ষকের বেতনের প্রক্রিয়া প্রায় শেষ হয়ে গেছে। গত এক মাস আগে তাদের বিষয়ে এজি অফিসে জানানো হয়। কিন্তু ওই শিক্ষকরা কোড না পাওয়ায় বেতন দেওয়া যায়নি। তবে সম্প্রতি তাদের কোড হয়ে গেছে। তাদের বেতন দ্রুতই হয়ে যাবে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শিবপদ দে জানান, আলফাডাঙ্গায় ১৬ জন সহকারি শিক্ষক পাঁচ মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না এ তথ্য তাঁর জানা নেই।

আরও পড়ুন...

অসময়ে চলে গেলেন সাংবাদিক হারান মিত্র

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক হারান মিত্র আর নেই। মাত্র ৩৫ বছর বয়সেই পরপারে …

মধুমতি নদীর ভাঙ্গনে দিশেহারা গোপালপুর-টগরবন্ধবাসী

কামরুজ্জামান সোহেল # ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার টগরবন্ধ ও গোপালপুর ইউনিয়নবাসী মধুমতি নদীর ভাঙ্গনে দিশেহারা অবস্থায় …