৩ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » চরভদ্রাশন » পদ্মায় বাঁধ দিয়ে অবাধে মাছ শিকার করছে প্রভাবশালীরা

পদ্মায় বাঁধ দিয়ে অবাধে মাছ শিকার করছে প্রভাবশালীরা

ফের অসাধু একটি চক্র পদ্মা নদীতে বাঁধ দিয়ে মাছ শিকারে ব্যস্ত রয়েছে। গত বছর এই চক্রের একাধিক বাঁধ প্রশাসন ভেঙে দিলেও এবার তার কোন উদ্যোগ নেই। ফলে পদ্মা নদীতে মাছ শিকারে যাওয়া জেলেরা চরম বিপাকে পড়েছে। জানা গেছে, ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার চরসালেপুর এলাকায় পদ্মা নদীতে বাঁশ দিয়ে আড়াআড়ি ভাবে বাঁধ দিয়েছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র। নদীর প্রায় ১৬শ মিটার পর্যন্ত আড়াআড়ি ভাবে কয়েক হাজার বাঁশ পুতে বাঁধ দেয়া হয়েছে। চরভদ্রাসন উপজেলার গোপালপুর থেকে দোহারের মৈনুট ঘাটে যাবার পথে চরসালেপুর এলাকায় এ বাঁধ দেয়া হয়েছে। নদীর মূল প্রবাহকে বাঁধাগ্রস্থ করে জাল দিয়ে অবাধে মাছ শিকার করা হচ্ছে। বাঁধের কারনে একদিকে মাছের অবাধ বিচরন ও নৌ-চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। পাশাপাশি জাটকা ইলিশ, রুই-কাতলা, বোয়ালসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছোট-বড় মাছ ধরা হচ্ছে। খাঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল এই বাঁধ দিয়ে অবৈধ ভাবে মাছ শিকার করছে। ফলে পদ্মা নদীতে মাছ শিকার করা কয়েক শ জেলে এখন মানবেতরভাবে দিন কাটাচ্ছে। এ বিষয়ে চরঝাউকান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফরহাদ মৃধা জানান, পদ্মা নদীতে অবৈধ বাঁধের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। যারা বাঁধ দিয়েছে তারা ঠিক কাজ করেনি। প্রশাসনের উচিত দ্রুত বাঁধটি ভেঙে দেয়া। নদীতে বাঁধ দেয়া প্রসঙ্গে এই কাজের সাথে জড়িত জনৈক কাসেম মেম্বার জানান, প্রশাসনের কোন অনুমতি নেয়া হয়নি। তবে আমরা যারা বাঁধটি দিয়েছি তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছি বাঁধটি অপসারন করবো। চরভদ্রাসন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তানভির হোসেন বলেন, বাঁধের বিষয়ে আমাদের কিছুই জানা নেই। কেউ যদি অবৈধ ভাবে বাঁধ দিয়ে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারন নদীতে বাঁধ দেয়া শাস্তিযোগ্য অপরাধ। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জেসমিন সুলতানা জানান, বাঁধটির বিষয়ে আমি অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুতই মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে যারা এ কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট তাদের শাস্তির আওতায় আনা হবে। তাছাড়া বাঁধটি অপসারনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।