১১ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০১৯
Home » এক্সক্লুসিভ » পরিত্যক্ত ভবনেই ঝুঁকি নিয়ে পড়ালেখা করছে কোমলমতি শিশুরা

পরিত্যক্ত ভবনেই ঝুঁকি নিয়ে পড়ালেখা করছে কোমলমতি শিশুরা

সোহেল জামান
ফরিদপুরের সালথা উপজেলার একটি সরকারী প্রার্থমিক বিদ্যালয়ে পরিত্যক্ত ভবনেই ঝুঁকি নিয়ে পড়ালেখা করছে শিক্ষার্থীরা। দীর্ঘদিন ধরে স্কুল ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হলেও কতৃপক্ষের কোন উদ্যোগ না থাকায় ঝুঁকিপূর্ন জেনেও পাঠদান করতে বাধ্য হচ্ছেন শিক্ষকেরা। স্থানীয়রা জানান, সালথা উপজেলার সোনাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি বেশ কয়েক বছর আগে দুটি ভবনের একটি পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়। অপর ভবনটি ভালো থাকলেও সেখানে তিনটি কক্ষ রয়েছে। এরমধ্যে দুটি শ্রেনী কক্ষ ও একটি অফিস কক্ষ। বর্তমানে এ স্কুলে শিক্ষার্থীও সংখ্যা ২শত ২২ জন। শ্রেনী কক্ষ সংকটের কারনে পরিত্যক্ত ভবনেই ক্লাস করতে হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের। পরিত্যক্ত ভবনে পাঠদান করায় শিক্ষার্থীরা আতংকের মধ্যে থাকতে হচ্ছে। এ নিয়ে অভিভাবকেরাও দুঃচিন্তার মধ্যে রয়েছে। জানাগেছে, বিগত চার বছর আগে স্কুলের একটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষনা করে উপজেলা প্রকৌশল অফিস। এরপর দুই বছর সেই পরিত্যক্ত ভবনে শিক্ষার্থীদের পাঠদান বন্ধ ছিল। কিন্তু ক্লাস রুম সংকটের কারনে বাধ্য হয়েই ঝুকিপূর্ন ভবনেই ক্লাস নিতে হচ্ছে বলে জানান স্কুলটির শিক্ষকেরা।
বিদ্যালয়রে প্রধান শিক্ষক আইয়ুব আলী জানান, শ্রেনী কক্ষ কম থাকার কারনেই বাধ্য হয়ে ভবনটি ব্যবহার করতে হচ্ছে। এ নিয়ে একাধিক বার কতৃপক্ষের কাছে জানিয়েও কোন লাভ হয়নি। সব সময় আমাদের ভীতির মধ্যে থাকতে হয়।
উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ খোরশেদ আরম বলেন, স্কুলটির নতুন ভবনের জন্য আমরা চিঠি পাঠিয়েছি। আশা করছি খুব তারাতারি ভবন পাবো।
এ বিষয়ে সালথা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাকছুদুল ইসলাম বলেন, ঝুঁকিপূর্ন ভবনে পাঠদান মোটেও ঠিক হচ্ছেনা। যতদিন ভবন না পাওয়া যায় ততদিন অন্যত্র ক্লাস নেবার কথা বলা হবে শিক্ষকদের। দ্রুত সম্ভব নতুন ভবনের ব্যবস্থা করা হবে।

আরও পড়ুন...

সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবার পথে

সোহাগ জামান # মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে ফরিদপুর সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত …

ভন্ড ফকির ইছহাকের প্রতারণা ফাঁস হয়ে গেলো

ঘরের রয়েছে দু’টি সোনার কলস। সেখানে পাওয়া যাবে ২ কোটি টাকার সোনা। তবে তিন কান …