১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ রবিবার ২৬ মে ২০১৯
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » সালথায় সন্তানের পিতৃ পরিচয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে মা

সালথায় সন্তানের পিতৃ পরিচয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে মা

আবু নাসের হুসাইন # ফরিদপুরের সালথায় সন্তানের পিতার পরিচয়ের দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে লাইজু বেগম (১৮) নামে এক নারী। লাইজু উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের বাউষখালী গ্রামের আকমল বিশ্বাসের মেয়ে। ৬ মাসের শিশু সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবিতে শিশুকে নিয়ে স্থানীয় মাতুব্বরদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে লাইজু।
ভুক্তভোগী লাইজু বেগম বলেন, আমার আপন চাচা শহর আলী বিশ্বাসের ছেলে মামুন বিশ্বাস বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার সাথে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এক পর্যায় আমি গর্ভবতী হয়ে পড়ি। পরবর্তীতে বিয়ের জন্য চাপ দিলে নানা রকম তালবাহানা শুরু করে। আমি যখন ৪ মাসের গর্ভবতী ঐ সময় সে গোপনে অন্যত্র বিয়ে করে ফেলে। পরে পারিবারিক সালিশের মাধ্যমে ৬০ হাজার টাকা আমার বাবা কে দিয়ে আমাদেরকে এই এলাকা ছেড়ে অন্য এলাকায় বসবাস করতে বলে। উপায়ন্ত না পেয়ে আমার বাবা আমাকে নিয়ে ঢাকা চলে যায়। সেখানে আমার সন্তান ভূমিষ্ট হওয়ার পর সমাজের মানুষ সন্তানের পিতার নাম জানতে চায়, আমি জেনেও বলতে পারি না। এখন আমারও সন্তানের পিতার অধিকার ফিরিয়ে দিতে চাই।
অভিযুক্ত মামুন বিশ্বাসের সাথে কথা বলতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। মামুনের মা রিজিয়া বেগম বলেন আমার ছেলেকে যখন অন্যত্র বিয়ে দিতে গেলাম তখন লাইজু আমাদেরকে বললে আমরা ছেলেকে অন্যত্র বিয়ে দিতাম না। এখন আমরা কি করবো, ওতো অন্য একটি মেয়ে ঘরে নিয়ে এসেছে তার তো কোন দোষ নেই।
বল্লভদি ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, লাইজুর এই ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। আমরা লাইজু ও তার পরিবারকে আইনের আশ্রয় নেওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছি।

আরও পড়ুন...

সালথায় স্কুলছাত্রী ধর্ষনের ঘটনায় বিচার দাবী ইউপি চেয়ারম্যানের

আবু নাসের হুসাইন, সালথা (ফরিদপুর) ফরিদপুরের সালথায় দুই বন্ধু মিলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষনের ঘটনায় জড়িতদের বিচারের …

ফরিদপুরে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ দৃশ্য ফেসবুকে

ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে জোর পূর্বক ধর্ষন এবং ধর্ষনের চিত্র মোবাইলে ধারণ করে …