৪ অগ্রহায়ন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ সোমবার ১৯ নভেম্বর ২০১৮
Home » ফরিদপুরের সংবাদ » ফরিদপুরের চারটি আসনে আলোচনায় ৬ নারী প্রার্থী

ফরিদপুরের চারটি আসনে আলোচনায় ৬ নারী প্রার্থী

কামরুজ্জামান সোহেল #
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ফরিদপুরের চারটি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টির ৬ নারী প্রার্থী প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগ-বিএনপির দুইজন জাতীয় রাজনীতিতে বড় ভুমিকা রেখে চলেছেন। ৬ নারী প্রার্থীর মধ্যে দুইজন বর্তমান সাংসদ, আরেকজন নির্বাচন করে অল্প ভোটে হেরেছেন। বাকি তিনজন জাতীয় রাজনীতিতে নবাগত। ফরিদপুরের চারটি আসনের মধ্যে কেবলমাত্র ফরিদপুর-১ আসনে এখন পর্যন্ত কোন নারী প্রার্থীর প্রচারনা চোখে পড়েনি। সবচে বেশী তিনজন নারী প্রার্থী প্রচারনা চালাচ্ছেন ফরিদপুর-২ আসনে। তিনটি আসনেই নারী প্রার্থীরা আলোচনার মধ্যেই রয়েছেন। ফরিদপুর-২ আসনে বর্তমান এমপি হিসাবে রয়েছেন সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। বর্তমানে শারীরিক অসুস্থ্যতার কারনে তেমন একটা এলাকায় আসতে পারেন না। বয়সের ভারে ন্যুজ্ব থাকায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তার অংশ নেয়াটা বেশ কষ্টসাধ্য। তারপর আওয়ামী লীগের প্রবীন এই নেত্রীর প্রতিই ভরসা স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের। সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর পক্ষে বর্তমানে প্রচারনা চালাচ্ছেন দলের নেতা-কর্মীরা। এ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাইছেন জেলা পরিষদের সদস্য, মহিলা আওয়ামী নেত্রী আনজুমান আরা বেগম। তার পক্ষে দলের একটি বড় অংশ রয়েছেন বলে তিনি জানান। নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি বেশ কিছুদিন আগে থেকেই প্রচারনা চালাচ্ছেন। মনোনয়ন পেলে নির্বাচিত হবার ব্যাপারে তিনি শতভাগ নিশ্চিত বলে জানিয়েছেন তার কর্মী-সমর্থকেরা।
বিএনপি থেকে ২০০৮ সালে নির্বাচন করে হেরে যান দলের সাবেক মহাসচিব কে এম ওবায়দুর রহমানের কন্যা, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ফরিদপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু। বিএনপির প্রার্থী তালিকায় তার নাম রয়েছে সবার উপরে। তিনিই ফের দলের মনোনয়ন পাবেন এমনটি মনে করেন বিএনপির বেশীর ভাগ নেতা-কর্মী।
ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থী তালিকা কিংবা প্রচার-প্রচারনায় নেই কোন নারী প্রার্থী। তবে জাতীয় পার্টি (এরশাদ) থেকে নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মরহুম ইমরান চৌধুরীর সহধর্মিনী হাসিনা ইমরান চৌধুরী। সম্প্রতি, শহরের কমলাপুরস্থ তার বাসভবনে দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে এক মতিবিনিময় সভায় তিনি তার প্রার্থীতা ঘোষনা করেন। প্রার্থীতা ঘোষনা করেই তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে সভা-মতবিনিময় করে যাচ্ছেন। জাতীয় পার্টি আওয়ামী লীগের সাথে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন না করে একক ভাবে নির্বাচন করলে হাসিনা ইমরানই হবেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী এমনটি নিশ্চিত করে বলছেন দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। ফরিদপুর-৪ (ভাঙ্গা-সদরপুর-চরভদ্রাসন) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকায় আছেন সাবেক এমপি ও বর্তমানে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি নিলুফার জাফরউল্যাহ। ২০০৮ সালের নির্বাচনে তার স্বামী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ মামলা সংক্রান্ত জটিলতায় নির্বাচন করতে পারেননি। সেই সময় নির্বাচন করে জয়ী হন নিলুফার জাফরউল্যাহ। এবারও কোন কারনে কাজী জাফরউল্যাহ নির্বাচন করতে না পারলে নিলুফার জাফরউল্যাহ হবেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী এটা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের বেশীর ভাগ নেতা। এ আসনে বিএনপির প্রার্থী হিসাবে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছেন জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির নেত্রী শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা। সিনেমা জগত থেকে রাজনীতির মাঠে নেমে বেশ আলোচনায় এসেছেন তিনি। বিগত কয়েক বছর ধরে এলাকায় থেকে নিয়মিত গনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বিএনপির নীতি নির্ধারক ও হাই প্রোফাইল নেতাদের সাথে শায়লার সু-সম্পর্ক রয়েছে। সেই হিসাবে শায়লা এ আসন থেকে মনোনয়ন পেলে অবাক হবার কিছু নেই।

আরও পড়ুন...

সালথায় পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ

সালথা প্রতিনিধি # ফরিদপুরের সালথা উপজেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নে পুলিশের গাড়ী লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালিয়েছে …

ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগে ‘ডামি প্রার্থীর’ ছড়াছড়ি

কামরুজ্জামান সোহেল  # ফরিদপুর-১ (বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা-মধুখালী) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকা বেশ লম্বা। দীর্ঘদিন ধরে …