রাজনীতি

বিশেষ যুগ্ম-মহাসচিব পদ তৈরী করে ঐ পদে বসানো হচ্ছে ডা. জোবায়দা রহমানকে

পরবর্তী কাউন্সিল না হওয়া পর্যন্ত আপাতত স্বপদেই বহাল থাকছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে বিশেষ চমক থাকছে নতুন একটি পদ নিয়ে। মির্জা ফখরুল ইসলামকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবার বিশেষ যুগ্ম-মহাসচিব পদ তৈরী করে ঐ পদে বসানো হচ্ছে তারেক রহমানের সহধর্মিনী ডা. জোবায়দা রহমানকে। বিএনপিকে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করতে খালেদা জিয়া এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যে খালেদা জিয়ার এ মনোভাব জানিয়ে দেয়া হয়েছে তারেক রহমানকেও। যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানও জোবায়দা প্রশ্নে মানসিক প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। আর এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কথা বলার জন্য খুব শিগগিরই যুক্তরাজ্যে যাচ্ছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির একটি সূত্র জানায়, কারাগার থেকে চিরকুটের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়া তার মনোভাব পৌঁছে দেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে। এরপর মির্জা ফখরুল বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন খালেদা জিয়ার পরিবারের বেশ কয়েকজনের সঙ্গে। তাদের মধ্যে আলোচনায় আইনী বিষয়টি সামনে আসে। জোবায়দা রহমান দেশে ফিরলে তাঁকে পড়তে হবে বেশ কয়েকটি আইনী জটিলতায়। এধরনের জটিলতা কাটিয়ে জোবায়দা রাজনীতিতে নিজেকে কতটুকু মানিয়ে নিতে পারবেন সে বিষয়গুলো নিয়েও বিশদ আলোচনা হয়। তবে সবাই একমত পোষণ করেন যে, খালেদা এবং তারেকের অনুপস্থিতে একমাত্র জিয়া পরিবারের কেউ এগিয়ে আসলে বিএনপির বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। আর সেক্ষেত্রে একমাত্র উজ্জ্বল সম্ভাবনা ডা. জোবায়দা রহমানের ক্ষেত্রে। তারেক রহমানের সহধর্মিনী হলেও মার্জিত, নম্র এবং ক্লিন ইমেজের অধিকারী ডা. জোবায়দা রহমান।

এদিকে, আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথির রাজনীতিতে আসার বিষয়টি সামনে এলেও খালেদা জিয়া তাতে সম্মতি দেননি। কারণ সিঁথির রাজনৈতিক দূরদর্শিতা এবং প্রজ্ঞা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। খালেদা জিয়ার একটি ঘনিষ্ঠমহল জানায়, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে সরিয়ে অন্য কাউকে মহাসচিব বানানোর যে পরিকল্পনা বিএনপির মধ্যকার একটি গ্রুপ চালিয়ে যাচ্ছে এমনটা আঁচ করতে পেরেই কারাবন্দী খালেদা জিয়া আপাতত কৌশল হিসেবে ডা. জোবায়দা রহমানকে বিশেষ যুগ্ম-মহাসচিবের দায়িত্ব দিয়ে আপাতত বিষয়টি ধামাচাপা দিতে চাচ্ছেন। তারা জানান, আগামী কাউন্সিল অধিবেশন পর্যন্ত বেগম খালেদা জিয়া ফখরুলকেই মহাসচিব পদে রাখতে চান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *