ফরিদপুর সদর

করোনার কাছে হেরে গেলেন জেলা পরিষদের চেয়ারমান লোকমান মৃধা

সোহাগ জামান।
করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন ফরিদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেন মৃধা (ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে ঢাকার শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। তিনি স্ত্রী, ২ পুত্র, ২ কন্যাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। লোকমান হোসেন মৃতা গত ২৩ জুন করোনার উপসর্গ নিয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি ছিলেন। পরে করোনা রিপোর্টে পজিটিভ আসে। এরপর থেকে তিনি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে মারাত্বক অসুস্থ্য হয়ে পড়লে উন্নত চিকি]সার জন্য তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর থেকেই সে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। লোকমান হোসেন মৃধার মৃত্যুতে ফরিদপুর শহরজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। লোকমান হোসেন মৃধার মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনের এমপি ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ফরিদপুর-২ আসনের এমপি, সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, ফরিদপুর-১ আসনের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান, সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, পুলিশ সুপার মোঃ আলিমুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ হোসেন, সাবেক এমপি শাহ মোহাম্মদ আবু জাফর, পৌরমেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি জহিরুল হক শাহজাদা মিয়া, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের আহবায়ক কমিটির সদস্য, ফরিদপুর কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদক ওয়াহিদ মিলটন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *