জাতীয় ফরিদপুর সদর

আদালত ঘুরে গেলেন পলাতক আবজাল

দুর্নীতির পৃথক দুই মামলায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মেডিকেল এডুকেশন শাখার হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা পলাতক আবজাল হোসেন আদালতে এসে ঘুরেফিরে চলে গেছেন। এর আগে গতকাল সকাল ১০টার দিকে আইনজীবীর মাধ্যমে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে তিনি জামিনে মুক্তির পৃথক দুই আবেদন করেন। ওই আবেদন দুটির ওপর বেলা ১১টার দিকে শুনানি হওয়ার কাথা ছিল। কিন্তু বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ অন্যান্য মামলা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় আবজালের জামিন আবেদন ফেরত নিয়ে যান তার আইনজীবী শাহিনুল ইসলাম। শাহিনুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার মক্কেল আবজাল হোসেন আত্মসমর্পণের উদ্দেশ্যে আদালতে এসেছিলেন,  কিন্তু আমরা জামিন আবেদন ফেরত নেওয়ায় আত্মসমর্পণ করা হয়নি।’ এ বিষয়ে দুদকের আইনজীবী মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আসামিদের বিরুদ্ধে দুই মামলায় প্রায় ৩০০ কোটি টাকার মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ রয়েছে। আসামিরা আদালতে এসে আত্মসমর্পণের আবেদন জমা দিয়েছিলেন। পরে সে আবেদন দুটি ফেরত নিয়ে গেছেন। দুদকের পক্ষ থেকে আমরা জামিন আবেদনের বিরোধিতা করার সব প্রস্তুতি নিয়েছিলাম।’ মামলা দুটির মধ্যে একটিতে আবজাল হোসেন একা আসামি এবং অন্যটিতে তার স্ত্রী রুবিনা খানম যৌথভাবে আসামি। গত বছর ২৭ জুন দুদকের উপপরিচালক মো. তৌফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১-এ অবৈধ সম্পদ অর্জন, মানি লন্ডারিং ও দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে মামলা দুটি করেন। মামলা দুটিতে আবজাল দম্পতির বিরুদ্ধে ৩৬ কোটি ৩০ লাখ ৬১ হাজার ৪৯৩ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও ভোগদখলে রাখার অভিযোগ আনা হয়েছে। এ ছাড়া ২৮৪ কোটি ৫১ লাখ ১৩ হাজার ২০৭ টাকার মানি লন্ডারিং অপরাধের অভিযোগও করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *